শাপলা তুই বড় নিষ্ঠুর- শরিফ সালাহউদ্দিন

এই তোর মনে পড়ে শাপলা?
মনে পড়ে সেই নির্মম গণহত্যা?
মনে পড়ে তুই সেদিন জান দিয়েছিলি,
মায়ের কুল খালি করে হয়েছিলি শহীদ?
না তুই তো এমন ছিলি না,
তুই ঘাতক দালাল গাদ্দার চাটুকার কোনোটাই ছিলি না
বুঝেছি এবার তবে জাতীয় গাদ্দারদের ভয়াল থাবার ঘ্রাসে পরিণত হয়েছিলি তুই?
তাই তো তুইও গাদ্দার সেজেছিলে
গাদ্দারদের চাপে পড়ে চিনলি না আনোয়ার শাহ মরহুমকে
তিনি আঁছ করতে পেরেছিলেন সেদিন তোর সাথে কী ঘটতে যাচ্ছে
তোকে দোষী করাই ছিলো তাদের অভিপ্রায় তাই তুই বোবাকান্না করেছিলে হয়তো।
মনে পড়ে সেদিন তুই প্রেমিক ছিলি নবীর,
অশ্রুতে ভালোবাসা ঝড়িয়ে ছিলি তুই?
বলেছিলি এবার ক্ষত নিয়ে চলে যাচ্ছি বন্ধু,
বিজয় ছিনিয়ে এনো পরেরবার?
জান্নাতের বাগানে বসে মনে পড়ে তোর?
না, আমার পরেরবার আর আসেনি,
না, আমি পারিনি আর লড়াই করতে,
তারা আমার হাত পা দিয়েছে ভেঙ্গে,
বানিয়ে ছেড়েছে আমায় তাদের পুতুল,
আমি তাদের হয়ে নেচে যাই হাসিমুখে,
আমার পুরো শরীর যেন এখন তাদের কাছে বন্দি।
আমি অন্ধ, আমি অচল,আমি বৃদ্ধ,
শক্তি নেই আমার, হারিয়ে ফেলেছি সেসব।
না,আমি পারিনি, আমি লজ্জিত,
আমি কস্টিপ দিয়ে বেঁধে রাখা মুখমন্ডল।
আমি লজ্জিত আজ পাঁচ’ই মে,
কিন্তু আমি পিছিয়ে হাজার বছর।
আমি লজ্জিত আমি ভুলে গেছি তোকে,
আমি লজ্জিত আমি ভুলে গেছি আমার রক্ত,
আমি লজ্জিত আমি ভুলে গেছি আমায়।
আজ দু হাজার বিশ ৫ মে,
আমি লজ্জিত।আমি অনুশোচনীয়।আমি সন্তপ্ত। আমি অনুতপ্ত।

আজ ৫ মে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *